মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

৪২ নং বাড্ডাগাতী এম,ই,বি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

১৯৭৩ সালে বাড্ডাগাতী গ্রামে কতিপয় বিদ্যানুরাগী ব্যক্তির প্রচেষ্টায় গোলপাতার ছাউরী, বাঁশের খুটি, চাটাই এর বেড়া দ্বারা তৈরী স্বল্প সংখ্যক ছাত্র/ছাত্রী নিয়ে বিদ্যালয়ের অগ্রগতি শুরু হয়। আজ ৪ জন শিক্ষক ২১৮ জন ছাত্রছাত্রী ও ৬টি শ্রেণী এবং একতলা বিশিষ্ট একটি পাকা ভবন বিদ্যমান।   

১৯৭৩

খুলনা জেলার ফুলতলা উপজেলার অধীন ৩নং জামিরা ইউনিয়নের অন্তর্গত বাড্ডাগাতী একটি অজাগা গ্রাম। এই গ্রামে মোঃ ইসরাইল বিশ্বাস ও কয়েকজন বিদ্যানুরাগী ব্যক্তির প্রচেষ্টায় বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন।  

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
মোছাঃ কোহিনুর খাতুন। ০১৭৮৭৮৯৫০৪০ kahinoor625@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
মমতাজ বেগম ০১৭৮২৩১৫৫৮৬ momotazbegum79@gmail.com

৯২%

ক্রঃ নং

নাম

কমিটিতে পদবী

০১

বিএমএ গওহর

সভাপতি

০২

মো: আতিয়ার মিনা

সহ-সভাপতি

০৩

মোসা: কহিনুর খাতুন

সদস্য সচিব

০৪

ফাতেমা খাতুন বনিতা

সদস্য

০৫

মো: ইব্রাহিম গাজী

সদস্য

০৬

কোহিনুর বেগম

সদস্য

০৭

জয়নব বেগম

সদস্য

০৮

মো: ফিরোজ হাসান মোল্যা

সদস্য

০৯

রফিকুল বিশ্বাস

সদস্য

১০

কেএম শফিকুল ইসলাম

সদস্য

১১

মমতাজ বেগম

সদস্য

২০০৯ সালে ১ম শ্রেণীতে ভর্তিকৃত ৫০ জন

                                      ২০১৩ সালে ৫ম শ্রেনীতে সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহন ২৭ জন

                                       পুনারবৃত্তি ১৫ জন। অন্যত্র গমন ০৮ জন। ঝরে পড়ার হার ০.০০%।

                        

সমাপনী পরীক্ষায় ১০০% উত্তীর্ন। স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবসে মৌসুমী ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় উপজেলায় ১ম স্থান অধিকার।

শিশুর শারিরীক মানসিক সামাজিক, নৈতিক,মানবিক, নান্দনিক আধ্যাত্মিক ও আবেগিক বিকাশ সাধন এবং তাদের দেশাত্ববোধে বিজ্ঞান মনুষ্কতায় সৃজনশীলতায় ও উন্নত জীবনের স্বপ্নদর্শনে উদ্বুদ্ধ করা।

উপজেলা থেকে দুরত্ব ১২ কি:মি।সুগম উপজেলা থেকে জীপগাড়ি মটরসাইকেল স্কুটার ইজিবাইক, মাহেন্দ্রা, নছিমন, ভ্যান যোগে করে যাওয়া আসা যায় ।